শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

স্মার্টকার্ড থাকলে পাসপোর্ট ছাড়াই ঘুরা যাবে সাত দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ডেল্টাটাইমস্, আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮

/ জাতীয়
-ফাইল ছবি

স্মার্টকার্ড ব্যবহার করে ফোরাম অব দি ইলেকশন ম্যানেজমেন্ট বডিজ অব সাউথ এশিয়ার সাত দেশ ঘুরতে পারবেন বাংলাদেশের নাগরিকরা। সে ক্ষেত্রে পাসপোর্ট লাগবে না তাদের।
স্মার্ট কার্ড ও ভিসা দিয়ে সার্কের ৭ টি দেশে যাওয়া যাবে। সে ক্ষেত্রে পাসপোর্টের প্রয়োজন হবে না। ভবিষ্যতে এমন পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের (এনআইডি উইং) মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম।

তিনি বলেন, আমাদের স্মার্ট কার্ডে অনেক নিরাপত্তা রয়েছে । এটি ভবিষ্যতে পাসর্পোট হিসেবে কাজে আসবে। ৭ টি দেশ হলো- ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলংকা, আফগানিস্তান, নেপাল, ভুটান ও মালদ্বীপ।

মহাপরিচালক বলেন, এই কার্ডগুলো দিয়ে পাসপোর্টের কাজও করা যাবে। আমরা ফেমবোসার দেশগুলোতে পাসপোর্টের বদলে স্মার্টকার্ড ব্যবহার করতে পারব। এতে করে আমাদের পাসপোর্টের ঝামেলা কমে যাবে।

কার্ডের ভেতরে একটি পাতা আছে, যেখানে বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ, জাতীয় সংগীত, বাংলাদেশের মানচিত্র, শাপলা ফুল, আলট্রাভায়োলেট রে, চোখের আইরিশ, বায়োমেট্রিক, ফিঙ্গার প্রিন্টসহ আরও কয়েকটি ফিচার আছে। এ ছাড়া একজন মানুষের ৩১টি ডাটা আছে। এই ডাটাগুলো তার কি না আইডি পাঞ্চ করলেই সব দেখা যাবে।

মহাপরিচালক বলেন, শুরুতেই আমরা ফেমবোসার অন্তর্ভুক্ত দেশগুলো দিয়েই এই প্রক্রিয়া শুরু করতে চাই। পরবর্তীতে আস্তে আস্তে সবদেশে এটি চালু করা হবে। শীঘ্রই আমরা এই প্রক্রিয়া শুরু করব।
তিনি বলেন, স্মার্টকার্ডের মধ্য পাঁচটি স্তরে ২৫টি সিকিউরিটি ফিচার আছে। কার্ডে পাঁচটি লেয়ারে সিকিউরিটি ফিচার দেওয়া আছে। এছাড়াও নাগরিকের সম্পূর্ণ বায়োডাটা এর মধ্যে সংরক্ষিত আছে।

জানুয়ারি থেকে স্মার্টকার্ডের ব্যবহার শুরুর পরিকল্পনা রয়েছে জানিয়ে তিনি আরো বলেন, স্মার্টকার্ডে একজন নাগরিককে চেনার জন্য যা দরকার, তার সবই আছে। এখনও এর ব্যবহার ব্যাপকভাবে শুরু হয়নি। জানুয়ারি থেকে স্মার্টকার্ডের ব্যবহার শুরু করার পরিকল্পনা আছে। তখন মেশিনে কার্ডটি দিলে ব্যক্তির সব তথ্য চলে আসবে। ফিঙ্গার প্রিন্ট দিলেই সনাক্ত করা যাবে কার্ডের ব্যক্তির পরিচয়।