সোমবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

বান্দরবানের যে রহস্য বহু পর্যটকের অজানা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ডেল্টাটাইমস্, আপডেট : ১০ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

/ ফিচার
-ফাইল ছবি

বান্দরবানে যে কয়েকটি দর্শনীয় স্থান আছে বগা-লেক তার মধ্যে সবচেয়ে আকর্ষণীয়দের মাঝে একটা। প্রকৃতি তার নিজ খেয়ালে পাহাড়ের উপর জলরাশি সঞ্চার করে তৈরি করেছে এই হ্রদ। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে এর উচ্চতা প্রায় ২,৪০০ ফুট। পাহাড় চূড়ায় ১৫ একর জায়গা জুড়ে ছড়িয়ে আছে এই অত্যাশ্চর্য হ্রদটি। পাহাড়ের চূড়ায় নীল জলের আস্তর নীল আকাশের সাথে মিশে তৈরি করেছে এক প্রাকৃতিক বিস্ময়। মুগ্ধ দৃষ্টিতে তাকিয়ে দেখতে হয় আকাশ পাহাড় আর জলের মেলবন্ধন। প্রকৃতি এখানে ঢেলে দিয়েছে একরাশ সবুজের ছোঁয়াও। যেন তুলির আঁচড়ে বগা-লেকের পুরো জায়গা সেজেছে ক্যানভাসের রঙে আর প্রকৃতি তার আপন খেয়ালে এঁকেছে জলছবি।

বগা-হ্রদ বা বগা-কাইন বা ড্রাগন-লেক টি দু ধরনের মানুষের কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয় গন্তব্য। একদল মানুষ যান বগা লেকে তার সৌন্দর্য দেখতে, তাতে মুগ্ধ হতে। আর এক দল মানুষ যান এই স্থানটিকে একটি বেজ ক্যাম্প এর মত করে আশে পাশের এলাকাগুলোতে এডভেঞ্চার করতে। যার ফলে বগা লেক দিনকে দিন ভ্রমণপিপাসু মানুষদের একটা মেলায় পরিণত হচ্ছে।

বগা লেকের পাশে থাকেন বম সম্প্রদায়ের কিছু মানুষ, তারা নিজেদের কুটিরে আগত পর্যটকদের থাকার ব্যবস্থা করে দেন।

বগা-লেকের জন্ম ইতিহাস নিয়ে স্থানীয় পাহাড়ি গ্রাম-গুলোয় একটি মজার লোককথা প্রচলিত আছে, সেটি অনেকটা এরকম – “অনেক অনেক দিন আগে একটি চোঙা আকৃতির পাহাড় ছিল। দুর্গম পাহাড় ঘন অরণ্যে ঢাকা। পাহাড়ের কোলে বাস করত নানা নৃগোষ্ঠীর মানুষ- ম্রো, বম, তঞ্চঙ্গ্যা, ত্রিপুরা প্রভৃতি। সেই পাহাড়ের কাছাকাছি গ্রামগুলো থেকে প্রায়ই গবাদিপশু আর ছোট শিশুরা সেই পাহাড়টিতে হারিয়ে যেতো। অতিষ্ঠ গ্রামবাসীদের মধ্যে থেকে সাহসী যুবকদের দল এর কারণ অনুসন্ধানে গিয়ে দেখতে পায়, সেই পাহাড়ের চূড়ার  গর্তে এক ভয়ঙ্কর দর্শন বগা বাস করে। বম ভাষায় বগা মানে ড্রাগন। তারা কয়েকজন মিলে ড্রাগনটিকে আক্রমণ করে হত্যা করে ফেলে। ড্রাগনটির মৃত্যুর সাথে সাথে ড্রাগনের গুহা থেকে ভয়ঙ্কর গর্জনের সঙ্গে আগুন বেরিয়ে এসে পুড়ে দেয় আশপাশ। নিমিষেই সেই পাহাড়ের চূড়ায় মনোরম একটি পাহাড়ি লেকের জন্ম হয়। আর সেই গর্তটি এখন বাদুড় গুহা নামে পরিচিত।

তবে বগা-লেকের সৃষ্টি রহস্য নিয়ে বাংলাদেশের ভূ-তত্ত্ববিদগণ মনে করেন বগা-লেক মূলত মৃত আগ্নেয়গিরির জ্বালামুখ।

বগা-লেক যাবার সেরা সময় শীত কাল, তবে এডভেঞ্চার প্রিয় মানুষরা বর্ষায় যেতে পারেন সম্পূর্ণ সবুজ তাজা পাহাড় পেতে। ঢাকা থেকে বান্দরবান হয়ে রুমা বাজার থেকে বগা লেকে যাওয়া যায়। সূত্র: উইকিপিডিয়া