মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯, ২৭ কার্তিক ১৪২৬

কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত

নিজস্ব প্রতিবেদক, ডেল্টাটাইমস্, আপডেট : ৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

/ পর্যটন
-ফাইল ছবি

কুয়াকাটা মূলত তার সৌন্দর্যমণ্ডিত সৈকত, সৈকতে আছড়ে পরা বঙ্গোপসাগরের ফেনিল ঢেউ, দিগন্তজোড়া নীল আকাশ এবং ম্যানগ্রুভ বনের জন্য বিখ্যাত। প্রায় ৩০ কিলোমিটার দীর্ঘ, ৬ কিলোমিটার প্রশস্ত কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতটি পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া থানার লতাচাপলি ইউনিয়নে অবস্থিত। এই সৈকতের বিশেষত হল, এখান থেকে আপনি একই সাথে সূর্যোদয় এবং সূর্যাস্ত উপভোগ করতে পারবেন। সৈকতের কাছেই আছে সরকারি উদ্যোগে তৈরি ঝাউবন যেখানে আছে ঝাউ ও নারিকেল গাছ। আপনি সৈকত থেকে হেটেই ঝাউবনে যেতে পারবেন এবং এর মনোরম দৃশ্য ঊপোভোগ করতে পারবেন। ঝাউবনের পাশেই রয়েছে একটি ইকো পার্ক যেখানে পিকনিক করতে পারবেন। এছাড়া, আপনি ঝাউবনের পূর্বে অবস্থিত গঙ্গামাটি রিজার্ভ ফরেস্টে যেতে পারেন। প্রতিবছর প্রচুর পর্যটক এই কুয়াকাটা সৈকতে বেড়াতে আসেন।

কিভাবে যাবেন

পটুয়াখালী থেকে আপনি সহজেই বাসে করে কুয়াকাটায় পৌছাতে পারবেন। অবশ্য, আপনি যদি ঢাকা থেকে কুয়াকাটায় পৌছানোর উপায় জানতে চান, তবে এখানে ক্লিক করুন   
কিভাবে পৌঁছাবেন: পটুয়াখালী জেলা

রাজধানী ঢাকা থেকে পটুয়াখালী আপনি সড়কপথে, নদীপথে এবং আকাশপথে যেতে পারেন। এই সম্পর্কিত তথ্য আপনার সুবিধার্থে নিম্নে দেওয়া হলঃ

    রাস্তা যোগে
    পানি যোগে
    আকাশ পথে

ঢাকা থেকে পটুয়াখালীর সড়কপথে দূরত্ব ৩১৯ কিলোমিটার। ঢাকার সায়েদাবাদ এবং গাবতলি বাস টার্মিনাল থেকে পটুয়াখালীর উদ্দেশে বাস ছেড়ে যায়। সড়কপথে পটুয়াখালী যাওয়ার দুটি পথ রয়েছে, আপনি ঢাকা থেকে মাওয়া এবং বরিশাল হয়ে পটুয়াখালী পৌছাতে পারেন আবার ঢাকা থেকে আরিচা এবং বরিশাল হয়ে পটুয়াখালী পৌছাতে পারেন। এই রুটে চলাচলকারী বাসগুলোর ভাড়া ৪৫০ টাকা থেকে ৭০০ টাকা।
পটুয়াখালীতে চলাচলকারী বাসগুলোর মধ্যে আছেঃ
১।সাউদিয়া পরিবহন, সায়েদাবাদ কাউনটার, ফোনঃ ০১৯১৯৬৫৪৮৫৬, ০১৯১৯৫৬৪৮৫৭, ভাড়াঃ প্রায় ৩০০ টাকা, সকাল ১০ টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত প্রতি ঘণ্টায় ঢাকা থেকে ছেড়ে যায়।
২।আবদুল্লাহ পরিবহন, সকাল ৭ টা থেকে সন্ধ্যা ৭:৩০ মিনিটের মধ্যে ঢাকা থেকে ছেড়ে যায়, ভাড়াঃ প্রায় ৩০০ টাকা।
৩।হানিফ পরিবহন, ফোনঃ ০১৭১৩০৪৯৫৫৯
৪।ঈগল পরিবহন , ভোর ৬ টা থেকে রাত ১১:৪৫ মিনিট পর্যন্ত প্রতি ৪৫ মিনিট পরপর ঢাকা থেকে ছেড়ে যায়, ভাড়াঃ প্রায় ৩৫০ টাকা।
কোথায় থাকবেন

পটুয়াখালীতে থাকার জন্য বেশকিছু হোটেল রয়েছে। আপনার সুবিধার্থে কিছু হোটেলের তথ্য নিম্নে দেওয়া হলঃ
১। হোটেল বনানী প্যালেস, ফোনঃ ০১৭১৩৬৭৪১৮৯
২। হোটেল কুয়াকাটা ইন, ফোনঃ ০১৭৫০০০৮১৭৭
৩। হোটেল স্কাই প্যালেস, ফোনঃ ০১৭৭৫০৭৪৭৯
৪। বীচ হ্যাভেন, ফোনঃ ০১৭৩০০২১৩৪১
কি করবেন

 • প্রশস্ত সমুদ্র সৈকতের ছবি তুলতে পারেন।
• সূর্যোদয় এবং সূর্যাস্তের অপরূপ দৃশ্য প্রত্যক্ষ করতে পারেন।
• রাশ মেলা ও মাঘী পূর্ণিমার সময় বেড়াতে গেলে আপনি মেলায় যেতে পারেন।
• রাখাইন সম্প্রদায়ের আচার, রীতি, ঐতিহ্য, এবং পোশাক অবলোকন করতে পারেন।
• প্রাচীন বৌদ্ধ বিহারে বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ বুদ্ধমূর্তি দেখতে পারেন।
• শীতকালে বেড়াতে গেলে অতিথী পাখিদের বিশাল সমাহার দেখতে পারেন।
খাবার সুবিধা

কুয়াকাটার হোটেল এবং মোটেলগুলো তাদের নিজস্ব রেস্টুরেন্টে অতিথিদের জন্য খাবারের ব্যাবস্থা করে থাকে। এছাড়াও, এখানকার রেস্টুরেন্টগুলোতেও আপনি দেশী খাবারসহ হরেক রকমের খাবার পাবেন।
ভ্রমণ টিপস

কুয়াকাটার সৈকতে আপনি মোটরসাইকেলসহ গাইডদের পেয়ে যাবেন যারা আপনাকে সৈকতের কাছাকাছি আকর্ষণীয় জায়গাগুলোতে নিয়ে যাবে। এই গাইডদের সাথে আপনার সুবিধার্থে আকর্ষণীয় জায়গাগুলোর ছবিসহ অ্যালবাম থাকে যেটি দেখে আপনি আপনার গন্তব্য ঠিক করতে পারবেন। এই গাইডদের একজনকে আপনি ১-৪ ঘণ্টার জন্য ২০০/- থেকে ৫০০/- টাকার মধ্যে ভাড়া করতে পারেন। একজন গাইড একসাথে দুজন পর্যটককে তার মোটর সাইকেলের পেছনে নিতে পারে। কুয়াকাটা সৈকত এবং এটির আশেপাশের আকর্ষণীয় স্থানগুলো অল্প সময়ে ঘুরে দেখার জন্য আপনার একজন গাইডকে ভাড়া করে সাথে রাখাই সমীচীন হবে।