সোমবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

কাপহীন দুই সেরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ডেল্টাটাইমস্, আপডেট : ৬ জুলাই ২০১৮

/ ফিচার

 

বিমানবন্দরে এসেছেন মেসিরা। কিন্তু ফ্লাইট পিছিয়েছে। বিমানবন্দর থেকে বলা হলো, কারও জন্য নাকি অপেক্ষা করছে তারা।

অপেক্ষা যখন ফুরাল, মেসি দেখলেন, প্লেনে স্বয়ং ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো হাজির তাঁর দলবল নিয়ে। মাঠের ঘাম শরীরে তখনো লেগে আছে। মেসি বললেন, ‘তোমরা আর্জেন্টিনা যাবা?’

রোনালদো বলব না বলব না করেও কথা বলে ফেললেন মেসির সঙ্গে, ‘যেদিকে দুই চোখ যায়, চলে যাব!’

মেসি সহানুভূতির সঙ্গে বললেন, ‘তোমার দুঃখ আমি বুঝি! আমার এখানেই বসো না কেন?’

মেসির পাশে বসতেই প্লেন উড়তে শুরু করল। বিমানবালা এসে কফি দিয়ে গেল ওঁদের। রোনালদো কফিতে চুমুক দিয়ে বললেন, ‘হাতে শুধু কফির কাপই উঠল, মেসি, বিশ্বকাপ আর উঠল না!’

: হুম। ভেবেছিলাম এবার কাপ পাব! সেই কাপ নিয়ে ম্যারাডোনার সামনে ধরব, বলব, ‘দেখেন দেখেন, আমিও পারি!’

: আর পারা! পেরে কী হলো আমাদের! দুনিয়া আমাদের শুধু লিগগুলোতেই চিনল, বিশ্বকাপে কী পেলাম?

: দুঃখ কোরো না, জেমস বলেছেন, ‘কীসের এত দুঃখ তোমার, সারাক্ষণ বসে বসে ভাবছ!’ এ কী, তুমি কাঁদছ নাকি? জেমস কিন্তু আরও বলেছেন, ‘কান্নায় লাভ নেই, কান্নায় হবে না কোনো দিন পদ্মা–মেঘনা...’

: মেঘনা কে?

: আমিও জানি না। হাহ্! বুক থেকে কিছুক্ষণ পরপর দীর্ঘশ্বাস বেরিয়ে আসছে, ফ্রেন্ড!

: ফ্রেন্ড না, ওরা বলে ফ্রান্স! আমাকেও তুমি আজ থেকে ফ্রান্স বলতে পারো!

: মানে? ফাজলামি করছ? তোমাকে ফ্রান্স ডাকলে আমাকে তুমি ডাকবে উরুগুয়ে, ঠিক আছে? তুমি আমার ফ্রান্স আমি তোমার উরুগুয়ে! উরুগুয়ে! উরুগুয়ে!

: উরুগুয়ে? আগেই বোঝা উচিত ছিল মেসি আর রোনালদোর কোনো দিন বন্ধুত্ব হতে পারে না! এই প্লেন দাঁড় করাও... ড্রাইভার, এই ড্রাইভার!

: তোমাকে ওই কফির কাপ নিয়েই পাইলটকে ড্রাইভার বলে ডাকতে হবে!

: তো, তোমার হাতে কী, দেখেছ তো? ওই কফির কাপই!

 

উত্তেজিত রোনালদো এবার ধপাস করে বসে পড়লেন। কফি খেতে খেতে অচিন কোনো দেশের দিকে যেতে লাগলেন তাঁরা। এ সময়ের কাপহীন দুই শ্রেষ্ঠ খেলোয়াড়।