বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গাইবান্ধায় ৮ হাজার হেক্টর জমিতে সবজি চাষ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ডেল্টাটাইমস্, আপডেট : ১ ডিসেম্বর ২০১৯

/ কৃষি

গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি:

শাকসবজিসহ মশলা জাতীয় ফসলের উৎপাদন বাড়াতে বীজসহ কৃষি উপকরণের দাম কমানোর দাবি জানিয়েছেন কৃষকরা। কৃষক বলেন সবজি উৎপাদনে কৃষি বিভাগের দায়সারা মনোভাব দূর করে সংরক্ষণ ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে পারলে কৃষি ফসলের ন্যায্য মূল্য যেমন নিশ্চিত হবে তেমনি আমদানি নির্ভরতাও কমে আসবে। গাইবান্ধার পুরাতন বাজারে আসতে শুরু করেছে শীতকালীন টাটকা সব শাক সবজি। লাউ-শিম, কপি, লালশাক, ধনিয়া পাতা, নতুন আলু আর টমেটোর বাজার এখন নি¤œমুখী। কিছুতেই কমছে না দেশি পেঁয়াজের ঝাঁজ। ৭০ থেকে ৮০ টাকা কেজির পাতা পেঁয়াজ দিয়েই আপাতত চাহিদা মেটাচ্ছেন ভোক্তারা। বাজারে প্রতিদিন চাহিদা থাকলেও কৃষি বিভাগের অবহেলার কারণে সবজি উৎপাদনে আগ্রহ কম কৃষকের। ইচ্ছে মতো বীজ, কীটনাশকসহ কৃষি উপকরণের দাম নির্ধারণ করায় হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রমের পরও ভাগ্য বদলায় না কপাল পোড়া কৃষকদের। আমদানি নির্ভরতা কমাতে কম খরচে শাকসবজি আর মশলা জাতীয় ফসলের উৎপাদন বাড়ানোর পাশাপাশি উৎপাদিত কৃষি পণ্য সংরক্ষণের ব্যবস্থা করা প্রয়োজন বলে মনে করেন গাইবান্ধার কৃষকগণ। কৃষি অফিসের তথ্য মতে, গাইবান্ধায় রবি মৌসুমে প্রায় ৮ হাজার হেক্টর জমিতে সবজি চাষ হয়। উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা দেড় লাখ ধরা হলেও অর্জন হয়েছে ১ লাখ ৭৩ হাজার ৭৮৮ টন শাক সবজি।