মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ৬ কার্তিক ১৪২৬

কবি রাশিদুল রাশেদের দুটি কবিতা

ডেল্টাটাইমস্, আপডেট : ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

/ শিল্প সাহিত্য

কবি রাশিদুল রাশেদের দুটি কবিতা

ফিরে ফিরে তাকাই বারে বারে তোমাতে,
তুমি যখন ছিলে আমার দু'আখির সম্মুখে;
পারিনি একবারোও তাকাতে তখন তোমাতে।

এখন অনুভব হয় তোমার জন্য বুকে ব্যথা,  
কিন্তু তখন তোমায় ভালো লাগার কথা;
ভালোবাসার আকুতির কথা বলতে পারিনি।

তখন কী তোমার বুকে,
আমার জন্য হয়েছিলো কোন ব্যথা অনুভব?

হয়তো তোমার বুক পুড়ে যায় তোষের আগুনে বারবার,
এ আগুন নিভে যেতো যদি ছোয়া পেতো তোমার প্রাণ এই আমার।

তবুও তুমি বললে না সাহস করে,
আমিও হতে পারিনি চরম দুঃসাহসী ;
বলতে পারিনি যে, তোমাকে ভালোবাসি।

তাই ফিরে ফিরে তাকাই বারে বারে তোমাতে, আজও যখন তুমি থাকো আমার সম্মুখে।

-কবি রাশিদুল রাশেদ রচিত " প্রেমকাব্য" থেকে নেওয়া  ' ফিরে তাকাই বারে বারে' কবিতা।

 

গতির ঘূর্ণায়মান জীবনে,
এগিয়ে চলার প্রত্যয়ান্তে,
কোন কোন জীবন হেরে যায়!

হেরে যাওয়া মানে বিলীন হওয়া নয়কো,
বরং সভ্যতার অসীমতটে বিলীন হওয়া,
তখন হেরে যাওয়া জীবন ইতিহাস হবে হয়তো,
অথবা হয়ে যাবে একজন অগ্রপথিক!

কেননা গতির তালে তাল রাখতে,
তোমার ভর কত থাকা দরকার ছিলো?
তা তোমার দ্বারা প্রমাণিত হবে হয়তো!

কেননা গতির পথেরদাবী পূরণে,
কোন জীবন ঐকান্তিক ব্যার্থ,
তোমার হেরে যাওয়া তার ব্যবহারিক অর্থ।

তাইতো হেরে যাওয়া মানে হেরে যাওয়া নয়,
বরং জিতে যাওয়াতে নতুন উদ্যমে উৎসাহ পাওয়া!

ঘূর্ণায়মান জীবন রক্ষা করে ধারাবাহিকতা,
বারবার ফিরে আসবে জীবনের আগমনতা।

-কবি রাশিদুল রাশেদ রচিত "গতির ঘূর্ণায়মান জীবন" কবিতা থেকে...